‘অন্য কারণে বাংলাদেশ ছেড়েছি’

বাংলাদেশের সঙ্গে তার চুক্তির মেয়াদ ২০১৯ সালের বিশ্বকাপ পর্যন্ত। কিন্তু হঠাৎ করেই পদত্যাগপত্র দিয়েছেন চন্দ্রিকা হাথরুসিংহে। এর পরই শুরু হয় নানা গুঞ্জন। কেউ বলছেন, টাইগার ক্রিকেটার কিংবা বোর্ডের সঙ্গে মনোমালিন্যের জেরে বাংলাদেশ ছাড়াছেন তিনি। আবারো কেউ বলছেন, দেশের টানে টাইগারদের কোচের দায়িত্ব আর পালন করবেন না তিনি।

তবে বুধবার (১৫ নভেম্বর) সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানিয়েছেন, টাকা নয়, দেশের জন্য কিছু করতেই হাথুরুসিংহে ফিরতে চাইছেন শ্রীলঙ্কায়। এছাড়া একই দিন দেশটির ক্রীড়ামন্ত্রী জয়াসেকারা নিশ্চিত করেছেন, তারা হাথুরুর সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হচ্ছেন। বলেন, তিনি (হাথুরুসিংহে) বাংলাদেশের ক্রিকেটকে উঁচু পর্যায়ে নিয়ে গেছেন। আমরা তাকে শ্রীলঙ্কার দায়িত্ব নেওয়ার প্রস্তাব করেছি, আমি অবশ্যই তাকে গ্রহণ করব।’

২০১৯ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের সঙ্গে চুক্তিতে মাসে ৪০ হাজার ডলার বেতন পান তিনি। যদিও জয়াসেকারা জানিয়েছেন, হাথুরুসিংহে এত টাকা আশা করছেন না শ্রীলঙ্কা থেকে। তবে কি দেশের হয়ে কোচিং করাতে গিয়ে আর্থিক লসে পড়ছেন হাথুরু?

ব্যাখ্যাটা দিয়েছেন জয়াসেকারা এভাবে, ‘হাথুরুসিংহে বলেছেন তিনি এখানে (শ্রীলঙ্কায়) বেশি বেতনের আশা করছেন না। তিনি আসলে দেশের জন্য কিছু করতে চাইছেন। ওখানকার (বাংলাদেশে) বেশি বেতন ছেড়ে তার এখানে আসার জন্য অবশ্যই আমাদের তাকে সম্মান জানাতে হবে।’ রয়টার্স